Bhubaneswar (ভুবনেশ্বর)

একদিকে বিশ্ববিখ্যাত মন্দিররাজি, অপর দিকে অফিস-কাছারি-বসতবাড়ি নিয়ে গড়ে ওঠা ওডিশার রাজধানী শহর ভুবনেশ্বর পর্যটন মানচিত্রে নাম করে নিয়েছে, তার ঐতিহাসিক তাৎপর্য ও বিখ্যাত কিছু মন্দিরের জন্য। অতিতে কলিঙ্গ রাজ্যের রাজধানী এই ভুবনেশ্বরেই ঐতিহাসিক কলিঙ্গ যুদ্ধ ঘটে, ধার্মিক মাহাত্মেও বারানসীর পরেই ভুবনেশ্বর।

 

কিভাবে যাবেন ভুবনেশ্বর ?

কোলকাতা থেকে সরাসরি ফ্লাইট, ট্রেন বা বাসে ভুবনেশ্বর আসা যায়। সড়কপথে কোলকাতা থেকে ভুবনেশ্বর প্রায় ৪৫০ কিমি। ফ্লাইট, ট্রেন, বাস বা গাড়ি বুকিং এর জন্য আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।

 

ভুবনেশ্বর ভ্রমণে এ কোথায় থাকবেন ?

ভুবনেশ্বরে থাকার জন্য বেশ কিছু সাধারন ও উচ্চ মানের হোটেল, রিসর্ট আছে। সঠিক মূল্যে ভালমানের হোটেল বুকিং এর জন্য আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।

 

ভুবনেশ্বরে কি কি দেখবেন ?

ভুবনেশ্বর বিখ্যাত কিছু প্রাচীন মন্দিরের জন্য, ভ্রমণের প্রথমেই ভুবনেশ্বরের অন্যতম বিশ্ববন্দিত লিঙ্গরাজ মন্দির – পূজ্য এখানে গ্রানাইট পাথরের তৈরি স্বর্গ-মর্ত-পাতালের অধীশ্বর ত্রিভুবনেশ্বর। দ্বাদশ জোতিরলিঙ্গের অন্যতম লিঙ্গরাজ। এছারাও অনন্ত বাসুদেব মন্দির, পরশুরামেশ্বর মন্দির দেখে নেওয়া যায়। পরবর্তী গন্তব্য পূর্বঘাট পর্বতমালার একই পাহাড়ে মুখোমুখি দাঁড়িয়ে বৌদ্ধ গুহা – উদয়গিরি ও খন্ডগিরি। এরপর একে একে শহর থেকে ৮ কিমি দুরের অনুচ্চ ধৌলি পাহাড় – শ্বেত-শুভ্র শান্তি স্তূপ তথা পিস প্যাগোডা, ওডিশার স্থাপত্য, ভাস্কর্য, বাদ্যযন্ত্র, অস্ত্রশস্ত্র, মুদ্রা ও পুরাতত্বের সম্ভার নিয়ে গড়া ওডিশা ষ্টেট মিউজিয়াম, নন্দনকানন তথা দেবতাদের নন্দনবনে বটানিকাল গার্ডেন ও চিড়িয়াখানা ইত্যাদি।

 

ভুবনেশ্বর ভ্রমণের সেরা সময় ?

সেপ্টেম্বর থেকে মার্চ মাস ভুবনেশ্বর ভ্রমনের সেরা সময় হলেও, বছরের যে কোন সময় একক ভাবে বা পুরী ভ্রমণের সাথে ভুবনেশ্বর ঘুরে আসা যায়।

 

জানেন কি ?

  • ১৯৪৮ এ কটক থেকে সরে ভুবনেশ্বরে নতুন রাজধানী হয়।
  • ভুবনেশ্বর ভ্রমণের স্মারক হিসেবে ওডিশার হস্তশিল্প ও তাঁত শিল্প – পাম পাতার কারুকাজ, ইক্কত ফেব্রিকের কাজ, বালাকাটির কাঁসার বাসন ইত্যাদি সাথে নেওয়া যায়।

 

এই ট্যুর সম্পর্কে আরও বিশদে জানতে ও বুকিং এর জন্য আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন – 9830222022 / 9674486001

Share this tourist place with your family & friend with below link.

WhatsApp chat